উবুন্টুর কোন ভার্সন টি আপনার ব্যবহার করা উচিত ?

উবুন্টুর কোন ভার্সন টি আপনার ব্যবহার করা উচিত ?

উবুন্টু নাকি জুবুন্টূ নাকি লুবুন্টু কিংবা কুবুন্টূ কোনটা আপনার ব্যবহার করা উচিত এই সিদ্ধান্ত নিতে গিয়ে যদি চুল ছেঁড়া শুরু করেন তাহলে আজকের আর্টিকেল টি আপনার জন্য। আজকে আমরা পুরো ডিটেইল আলোচনা করব কেন এবং কোনটা আপনার জন্য বেস্ট চয়েস।

এখন আপনি নিশ্চয় ইন্টারনেট এ অনেক খুঁজেছেন লিনাক্সের স্পেসিফিক কোন ডিস্ট্রো আপনার ব্যবহার করা উচিত, অনেকের কাছে থেকে সাজেশন নিয়েছেন কোনটা ব্যবহার করলে ভালো হয় এবং শেষ অব্ধি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যে আপনি উবুন্টুই ব্যবহার করবেন। এবং এখন সেই উবুনুটু ইন্সটল করতে গিয়ে দেখছেন আরেক ঝামেলা, উবুন্টুর রয়েছে অনেকগুলো ফ্লেভার। এখন কোন ফ্লেভার ইন্সটল করব কিংবা কোনটা ভালো হবে সেই সিধান্ত নেয়ার জন্য আজকের আলোচনা হবে একটা বিগিনার গাইড।

উবুন্টুর কোন ভার্সন টি আপনার ব্যবহার করা উচিত ?
উবুন্টুর কোন ভার্সন টি আপনার ব্যবহার করা উচিত ?

কিন্তু এত উবুন্টুর ফ্লেভার কেন?

যেহেতু আপনি উবুন্টু নিয়ে বেশ ঘাটাঘাটি করেছেন তাই ধরেই নিচ্ছি আপনি লুবুন্টু, কুবুন্টু কিংবা জুবুন্টু এরকমের নাম গুলো বেশ কয়েকবার শুনেছেন। ভাববেন না যে শুধু শুধু এই নাম গুলো দেয়া হয়েছে বরং এই নামের পেছনের লুকিয়ে আছে বেশ অনেকগুলো পার্থক্য।

মূলত উবুন্টুর ফ্লেভার গুলো তৈরি হয়েছে বিভিন্ন পারপোজ এবং বিভিন্ন ডেস্কটপ এনভাইরোমেন্ট কে আলাদা করে রেখে। এবং ইউজার বেজ ও এখানে বেশ বড় একটা ফ্যাক্ট।

জখন লিনাক্সের কথা আসে তখন স্বাভাবিক ভাবেই আপনি পছন্দের ডেস্কটপ এনভাইরোমেন্ট আপনার লিনাক্স ডিস্ট্রো তে ইন্সটল করে নিতে পারবেন। এই লিংক থেকে দেখে নিন জনপ্রিয় কিছু লিনাক্স ডেস্কটপ এনভাইরোমেন্ট এর নাম। মূলত ডেস্কটপ এনভাইরোমেন্ট গুলো ইউজার ইন্টারফেস এবং এক্সপেরিয়েন্স এর জন্য দায়ী। যেমন আইকন, টুলবার, ওয়ালপেপার কিংবা উইজেট সহ আনুষাঙ্গিক অনেক কিছুই ডিফাইন করে।বেশিরভাগ ডেস্কটপ এনভাইরোমেন্ট এর নিজস্ব উইলিটিস সহ ডিফল্ট এপ রয়েছে যেগুলোর জন্য ডেস্কটপ এনভাইরোমেন্ট কেই অনেক সময় মুল ওএস ধরে নেয়া হয়।

মূলত এর প্রধান কাজ আপনি অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করতে গিয়ে কেমন ফিল করছেন সেই এক্সপেরিয়েন্স টাই চেঞ্জ করা, সেটা ইউজার ইন্টারফেস কিংবা এক্সপেরিয়েন্স সব ওয়েতেই হতে পারে।

উবুন্টুর ডিফারেন্ট ফ্লেভারের মধ্যে পার্থক্য কী?

লিনাক্সের ডেস্কটপ বিশ্বে, উবুন্টুর বেশ কিছু অফিশিয়াল ফ্লেভার আছে। সেগুলো হলঃ

– Ubuntu GNOME ( উবুন্টুর ডিফল্ট ফ্লেভার )
– Xubuntu
– Lubuntu
– Kubuntu
– Ubuntu Mate
– Ubuntu Budgie
– Ubuntu Kylin
– Ubuntu Studio

এখানে আমি স্পেশালি বলেই দিয়েছি যে অফিশিয়াল ফ্লেভার। অর্থাৎ উপরের ফ্লেভার গুলো মেইনটেইন করে উবুন্টুর প্যারেন্ট কোম্পানি Canonical. যখন ই উবুন্টুর একটা নতুন ভার্শন রিলিজ হয় তখন ই অন্যান্য ফ্লেভার গুলোও আপডেট হয়। সবগুলোর জন্যই ওরা একই ডেভেলপমেন্ট সাইকেল এবং শিডিউল ব্যবহার করে।

তাহলে এখন স্বাভাবিক ভাবেই প্রশ্ন চলে আসে

কোন উবুন্টু ফ্লেভার আমার জন্য বেস্ট ?

মূলত এটা আপনার প্রয়োজনের উপরে নির্ভর করে। চলুন একটু সহজ করে প্রতিটা ফ্লেভার এর বিস্তারিত দেখে আসি, তাহলে বুঝতে সুবিধা হবে যে কোনটা আপনার জন্য বেস্ট

১। উবুন্টু অথবা উবুন্টু ডিফল্ট অথবা উবুন্টু Gnome

উবুন্টুর কোন ভার্সন টি আপনার ব্যবহার করা উচিত ?

মূলত এটি হচ্ছে উবুন্টুর ডিফল্ট এবং প্রথম ভার্সন। এর ইউজার এক্সপেরিয়েন্স অন্যান্য ফ্লেভার তো বটেই বরং অন্যান্য ডিস্ট্রো থেকেই আলাদা। এটাই মূলত উবুন্টু টিমের মেইন ফোকাস। অন্যান্য ফ্লেভার কিংবা ডিস্ট্রোর তুলনায় আপনি উবুন্টুর ফোরামে সবথেকে বেশি হেল্প পাবেন। টন টন ব্লগ পোস্ট, আর্টিকেল, ডকুমেন্ট সহ প্রশ্ন – উত্তর সব কিছু উবুন্টুর এই ফ্লেভারের আছে বেশি বেশি। সংক্ষিপ্ত করে বলতে গেলে এর সাপোর্ট বেশ অনেক বড়।

কিন্তু Gnome সাধারণের তুলনায় একটু বেশিই হার্ডওয়্যার ব্যবহার করে তার ফাংশনালিটির জন্য। তাই যদি আপনার পিসির র‍্যাম ৪ জিবির কম হয় তাহলে আমি ইন্সটল করতে রেকোমেন্ড করব না।

২। কুবুন্টু

উবুন্টুর কোন ভার্সন টি আপনার ব্যবহার করা উচিত ?

 

কুবুন্টু হচ্ছে উবুন্টুর KDE ডেস্কটপ এনভাইরোমেন্ট এর ভার্সন বা ফ্লেভার। KDE প্লাজমা মূলত এর ইউনিক এবং পোলাইশড লুক এর বেশি সু পরিচিত। এটি মডার্ন এবং স্লিক লুকিং একটা এনভাইরোমেন্ট সার্ভ করে। অনেক অনেক টুইক্স যেমন উইজেট, স্ক্রিনলেট সহ কাস্টমাইজেশনের অনেক টুল কুবুন্টু আপনাকে দিয়ে থাকে। যদি আপনার ডেস্কটপ আপনি কাস্টোমাইজ করতে চান তাহলে অবশ্যই এটা বেস্ট চয়েস।

কুবুন্টু সব ধরনের হার্ডওয়্যার এই বেশ ভালো ভাবেই চলতে পারে। আপনার সিস্টেম এর যদি ২ জিবির বেশি র‍্যাম থাকে তাহলে খুব সুন্দর ভাবেই আপনি কুবুন্টু ব্যবহার করতে পারবেন।

যেহেতু KDE গত কয়েকবছরে বেশ উন্নত হয়েছে তাই এর লুক এর পাশাপাশি এর পারফরম্যান্স ও অনেক বেটার হয়েছে।

৩। জুবুন্টু

উবুন্টুর কোন ভার্সন টি আপনার ব্যবহার করা উচিত ?

জুবুন্টু তার ডেস্কটপ এনভাইরোমেন্ট হিসেবে Xfce ব্যবহার করে থাকে। মূলত Xfce অনেক পুরাতন ডেস্কটপ এনভাইরোমেন্ট যেটা ব্যাসিক ডেস্কটপ কাস্টোমাইজ এর সঙ্গে বেশ ভালো ইউজার ইন্টারফেস দিয়ে থাকে। যদিও এটা অন্যান্য ডিস্ট্রোর মতো অতটা গুড লুকিং না তবে রিসোর্স ইউজ এর দিক থেকে অনেক লাইটওয়েট সন্দেহ নেই।

আপনার সিস্টেমের র‍্যাম যদি 1 জিবিও হইয়ে থাকে তবুও আপনি বেশ ভালো ভাবেই জুবুন্টু ব্যবহার করতে পারবেন।

৪। লুবুন্টু

উবুন্টুর কোন ভার্সন টি আপনার ব্যবহার করা উচিত ?

জুবুন্টুর মতোই লুবুন্টু ও কম রিসোর্স ইউজ করে এবং অনেক লাইটওয়েট। লোয়ার এন্ড সিস্টেমের জন্য বেশ পারফেক্ট চয়েস লুবুন্টু। রিসেন্ট কিছু রিলিজ থেকে লুবুন্টু মূলত ডিফল্ট হিসেবে LXQt ব্যবহার করে যদি তারা আগে ব্যবহার করত LXDE। LXQt অনেক লাইটওয়েট এবং পাওয়ার এফিশিয়েন্ট একটা ডেস্কটপ এনভাইরোমেন্ট। আপনি যদি উইন্ডোজ এক্সপি থেকে লিউনাক্সে সুইচ করেন তাহলে অবশ্যই লুবুন্টুর সঙ্গে সহজেই রিলেট করতে পারবেন।

লুবুন্টু অন্যান্য ফ্লেভার গুলোর মধ্য থেকে সবচেয়ে লাইট ফ্লেভার। যদি আপনার র‍্যাম 1 জিবির কম ও হয়ে থাকে তাহলেও আপনি লুবুন্টু সহজেই ব্যবহার করতে পারবেন। এটা পাওয়ার ইফিশিয়েন্ট হওয়ায় সিপিইউ এর ওভারহিট ও ম্যানেজ করে নেই।

পরিশেষে

আমরা আজকের আর্টিকেলে বলেছি উবুন্টুর অফিশিয়াল ফ্লেভার গুলো নিয়ে এবং নেক্সট আর্টিকেলে আর কিছু ফ্লেভার নিয়ে আমরা কথা বলব। সেই অবধি ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। আপনি কোন উবুন্টু ফ্লেভার টি ব্যবহারের সিধান্ত নিলেন জানিয়ে দিন কমেন্ট বক্সে।

ধন্যবাদ।

You Might Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *