মাঞ্জারো নাকি উবুন্টু ?

মাঞ্জারো নাকি উবুন্টু ?

আপনি যদি কম্পিউটার সাথে একটু বেশি সময় ধরে পরিচিত হয়ে থাকেন এবং এক্সপ্লোর করতে পছন্দ করেন তাহলে নিশ্চয় লিনাক্স বেজড বেশ কিছু ডিস্ট্রো অলরেডি ব্যবহার করে ফেলেছেন। আর ওপেন সোর্স প্রিয় হলে তো কথায় নেই, আপনি হয়তো উবুন্টু, মিন্ট, ডেবিয়ান, আর্ক এর সাথে দৌড়ে বেড়ান।

যদিও লিনাক্স বেজড ৬০০ এর বেশি ডিস্ট্রো এখন এভেইলেভ্ল তাই তার মধ্যে থেকে নিশ্চয় আপনি কোন না কোন ডিস্ট্রো কে অন্যগুলোর তুলনায় বেশি পছন্দ করেন।

মাঞ্জারো নাকি উবুন্টু ?
মাঞ্জারো নাকি উবুন্টু ?

 

আজকের এই আর্টিকেলে আমরা ফোকাস করবো মোটামুটি দুইটা বহুল জনপ্রিয় লিনাক্স ডিস্ট্রো নিয়ে। প্রথমটা হচ্ছে উবুন্টু যা ২০০৪ সালে প্রথম রিলিজ হবার পর থেকে ক্রমেই জনপ্রিয় হইয়ে উঠছে এবং এখন অবধি অনেক জনপ্রিয়। এবং অন্যটা হচ্ছে ২০১১ সালে রিলিজ হওয়া মাঞ্জারো। আমরা বেশ কিছু এরিয়া বা প্যারামিটার এ এই দুইটা ডিস্ট্রো কে এই আর্টিকেলে তুলনা করব।

মাঞ্জারো

 

মাঞ্জারো লিনাক্স হচ্ছে উঠতি প্রজন্মের আর্ক বেজড ডিস্ট্রো যেটা তৈরি হয়েছে মূলত আর্ক এর সব ফিচার সহ আর বেশি স্ট্যাবল এবং সিকিউর করতে। আর ইউজার ফ্রেন্ডলির কথা বললে বলতেই হয় যে মাঞ্জারো এদিক দিয়ে অনেক এগিয়ে। যারা তুলনামূলক লিনাক্স এর এনভাইরোমেন্ট এ নতুন তাদের জন্য মাঞ্জারো আসলে ফার্স্ট চয়েস হতে বাধ্য। এর অসাধারণ লুক আর সহজ ইউজার এক্সপেরিয়েন্স একজন নিউবি এর জন্য পারফেক্ট। তবে সার্ভার কিংবা এধরনের হোস্ট সার্ভিস এর জন্য মাঞ্জারো একেবারেই ভালো চয়েস নয়, বরং আমি বলব পারসোনাল ইউজ এর জন্যই বেস্ট।

উবুন্টু

 

ফ্রি এবং ওপেন সোর্স সবথেকে জনপ্রিয় ডেবিয়ান বেজড ডিস্ট্রো হচ্ছে উবুন্টু। উবুন্টু মূলত রিলিজ হয় ৩ টি মেজর এডিশন এ। উবুন্টু ডেস্কটপ যেটা পার্সোনাল ইউজার লক্ষ্য করে, উবুন্টু সার্ভার এবং উবুন্টু কোর যেটা মূলত IoT এর জন্য পারফেক্ট। এটা অনেক জনপ্রিয় ক্লাউড কম্পিউটিং এর জগতেও।

আপনি যদি একটা ভালো লিনাক্স ডিস্ট্রো খুঁজছেন যেটা শুরু করার জন্য ভালো তাহলে অবশ্যই উবুন্টু চয়েস করা উচিত। উবুন্টুর অনেক বড় ইউজার কমিউনিটি আছে যেখানে যেকোন সমস্যার সমাধান সহজেই পাওয়া যায়।

ফিচার এবং পার্থক্য

ফিচারমাঞ্জারোউবুন্টু
বেজডআর্ক লিনাক্সডেবিয়ান
প্যাকেজ ম্যানেজারPacman সহ অনেক প্যাকেজ ম্যানেজার ব্যবহার করেAPT প্যাকেজ ম্যানেজার ব্যবহার করে
ডেস্কটপ এনভাইরোমেন্ট – ডিফল্টXFCE, KDE, GNOME, i3, Cinnamon সহ আর অনেকGNOME
সাপোর্টেড আর্কিটেকচারX86-64Amd64, i386
Init সিস্টেমSystemdSystemd
প্লাটফর্ম এগ্নোস্টিক প্যাকেজস্ন্যাপ এবং ফ্লাটপ্যাক সাপোর্ট করেস্ন্যাপ, ফ্লাটপ্যাক এবং এপ ইমেজ
৩২ বিট সাপোর্টএখনো সাপোর্ট করেপারবেন।সাপোর্ট করেনা
ডকুমেন্টেশনআর্ক সহ নিজস্ব অনেক বড় ডকুমেন্টেশন আছেঅনেক বেশি জনপ্রিয় এবং অনেক বিশাল কমিউনিটি
ইউজার ফ্রেন্ডলিনেসআর্ক লিনাক্স কে আরো সহজে ব্যবহার করার জন্য বেস্টইউজার ফ্রেন্ডলি

প্যাকেজ ম্যানেজার

সফটওয়ার ইন্সটল, আপডেট সহ প্যাকেজ ম্যানেজ করতে বিভিন্ন ধরনের প্যাকেজ ম্যানেজার লিনাক্সে ব্যবহৃত হইয়ে আসছে।

উবুন্টু ডেবিয়ান ভিত্তিক হওয়ায় ওখান থেকেই APT প্যাকেজ ম্যানেজার ব্যবহার করে আসছে। অন্যদিকে মাঞ্জারো আর্ক বেজড হওয়ায় প্যাকমাক ব্যবহার করে। যদিও এই দুইটার সিট্যাক্স কিছুটা ভিন্ন তবে কাজ করার ফাংশনালিটি প্রায় একই রকম। দুটোই নতুন প্যাকেজ ইন্সটল করা, আপডেট করা, আপগ্রেড করা সহ সার্চ করার সুযোগ ও দেয়।

এদের মধ্যকার মুল পার্থক্য তাদের প্যাকেজ ইন্সটলেশনের জন্য রেপোজেটরির। উবুন্টুর জন্য অনেক অনেক সফটওয়ার প্যাকেজ অলরেডি আছে। ইউজার চাইলেই থার্ড পার্টি প্যাকেজ PPA এর মাধ্যমেও ইন্সটল করতে পারেন। অন্যদিকে মাঞ্জারোর খুব বেশি প্যকেজ না থাকলেও আর্ক এর রিপোজেটরির এক্সেস থাকায় সহজেই অনেক সফটওয়ার পাওয়া যায়।

যদি এমন হয় আপনি কোন একটা সফটওয়ার মাঞ্জারো তে খুঁজে পাচ্ছেন তাহলে প্রায় সব ক্ষেত্রেই তার একটা AUR বা আর্ক প্যাকেজ পাওয়া যায় এবং সহজেই সেটা ইন্সটল করা যায়। অন্যদিকে উবুন্টুর PPA এর তুলনায় AUR ম্যানেজ করা বেশি সহজ। এবং অনেক সময় PPA ব্রোকেন সহ অনেক সমস্যা হয় যেটা AUR এর ক্ষেত্রে বিরল।

তবে দুই ডিস্ট্রো ই স্ন্যাপ এবং ফ্লাটপ্যাক সাপোর্ট করে।

রিলিজ সাইকেল

লিনাক্সের ডিস্ট্রো দুইটির মধ্যকার আপগ্রেড সিস্টেম অনেক ভিন্ন। মাঞ্জারো একটা রোলিং রিলিজ সাপোর্টেড। অর্থাৎ বড় ধরনের পরিবর্তন আকস্মিক আসার পরিবর্তে মাঝে মাঝেই কন্টিনিউয়াস আপডেট হতেই থাকে, সেই সাথে কোন ইউজার চাইলেই প্যাকম্যান দিয়ে পুরো সিস্টেম আপডেট করতে পারেন। শুধুমাত্র আপনার মাঞ্জারো আপডেট রাখার মাধ্যমেই আপনি পুরো সিস্টেম একদম আপগ্রেডেড রাখতে পারেন।

অন্যদিকে উবুন্টু সম্পুর্ন ভিন্ন। প্রতি ২ বছর পর পর এর ডেভেলপার টিম একটা লং টার্ম সাপোর্ট ভার্শন বা LTS রিলিজ করে থাকে, প্রতি ৫ বছর পরে পরে সেগুলো বড় ধরনের আপডেট রাখা হয়। আবার ৬/৯ মাস পর পর ছোট খাট চেঞ্জ এর জন্য আপডেট ও আসে।

দুইটা রিলিজ মডেলের ই সুবিধা-অসুবিধা আছে। রোলিং রিলিজ নিশ্চিত করে আপনি সবসময় নতুন এবং আপডেটেড ভার্শন ব্যবহার করছেন। এবং এটা বেশ সহজ কারণ আপনাকে সম্পুর্ন আপগ্রেড এর ঝামেলায় যেতে হবেনা। তবে একটা অসুবিধা সেটা হল সবসময় যে LTS রিলিজের মতো স্ট্যাবল আপগ্রেড আপনি পাবেন সেটা কেউ এনশিওর করবে না।

আর উবুন্টুর আপগ্রেড সিস্টেম বেশ দীর্ঘ এবং সময় সাপেক্ষ কিন্তু ঝামেলা নাই তেমন। ডকুমেন্টেশন অনুযায়ী আপনি চাইলেই নির্দিষ্ট সময়ে LTS রিলিজ আপগ্রেড করে নিশ্চিন্ত থাকতে পারবেন।

সর্বশেষ

সবকিছু মিলিয়ে দুইটা ডিস্টোই আপনাকে তাদের নিজস্ব প্রয়োজন অনুযায়ী আপনাকে সার্ভ করবে। আপনি আপনার প্রয়োজনে যেকোন ডিস্ট্রো চাইলেই ব্যবহার করতে পারেন। যদি আপনার অনেক বেশি কাস্টমাইজেশন এবং সম্পুর্ন AUR প্যাকেজ সাপোর্ট পেতে চান তাহলে অবশ্যই মাঞ্জারো বেস্ট চয়েস।

আর স্ট্যাবল কোন ডিস্ট্রো চাইলে অবশ্যই উবুন্টু ভালো হবে। আর যদি আপনি লিনাক্সে একদম নতুন হইয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই উবুন্টু বেটার। তবে আপনি যেটাই চয়েস করেন না কেন আপনাকে পস্তাতে হবেনা, নিশ্চিত।

ব্যক্তিগত ভাবে আমি মাঞ্জারোকেই সাপোর্ট করব, কেননা এই আর্টিকেল তো মাঞ্জারো তে বসেই লিখছি। 🙂

আপনি এই দুইটা সম্পর্কে কি ভাবছেন? আপনার কোনটা পছন্দ আর কেন? জানিয়ে দিন কমেন্ট বক্সে।

You Might Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *